করোনাভাইরাস: বাংলাদেশে আরো দুইজনের মৃত্যু, নতুন করে নয়জন করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত

করোনাভাইরাসে দেশে আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আটজনের মৃত্যু হলো। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা আজ শনিবার এ তথ্য জানান। অনলাইনে আজ এ ব্রিফিং হয়। এ সময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক আবুল কালাম আজাদ উপস্থিত ছিলেন।

মীরজাদী সেব্রিনা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। নয়জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে দেশে ৭০ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হলো।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি ঘোষণা দেওয়া হয়। ১৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। দেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত শুরু হওয়ার পর এক দিনে শনাক্ত হওয়া ব্যক্তির সংখ্যা আজই সর্বোচ্চ।

today govt job circular

মীরজাদী সেব্রিনা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। যে নয়জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে, তাঁদের মধ্যে পাঁচজন এর আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন। অর্থাৎ, করোনায় আক্রান্ত পরিবারের সদস্য তাঁরা। বাকি দুজন বিদেশ থেকে এসেছিলেন। অন্য দুজনের শনাক্ত হওয়ার বিষয়ে অনুসন্ধান চলছে।

নতুন করে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ১০ বছর বয়সী দুই শিশু রয়েছে।

মীরজাদী বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় যে দুজনের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের একজনের বয়স ৯০ বছর, অন্যজনের ৬৮ বছর। দুজনের অন্যান্য অসুখ ছিল। তাঁদের হৃদ্‌রোগ ছিল, হার্টে স্টেন্ট পরানো ছিল এবং স্ট্রোকের ইতিহাস ছিল।

আইইডিসিআর পরিচালক বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় চারজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এ নিয়ে ৩০ জন সুস্থ হয় বাড়ি ফিরলেন। এখন আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ১২ জন বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। ২০ জন হাসপাতালে আছেন।

আজ সংবাদ ব্রিফিংয়ে উপস্থিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ পর্যন্ত ৪ লাখ ২৮ হাজার পিপিই সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩ লাখ ৬৬ হাজাররে বেশি বিতরণ করা হয়েছে। এখন ৬৪ হাজারের বেশি মজুত আছে।

About help desk

Check Also

করোনাভাইরাস: বাংলাদেশে নতুন ৩০৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত, মারা গেছে ৯ জন

বাংলাদেশে নতুন করে ৩০৯ জনের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। বাংলাদেশে এনিয়ে মোট শনাক্ত হওয়া কোভিড-১৯ …