News Blog

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া, বরিশাল জেলা লকডাউন ঘোষণা

Gopalganj Tungipara and Barisal District are lockdown Announces

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া লকডাউন

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলাকে লকডাউন করা হয়েছে। আজ রোববার সন্ধ্যা ছয়টায় এই লকডাউনের ঘোষণা দেয় উপজেলা প্রশাসন।

টুঙ্গিপাড়ার দুটি গ্রামে তিনজনের শরীরে করোনাভাইরাস পজিটিভ পাওয়া গেছে। তাই অতিরিক্ত সতর্কতায় এই লকডাউনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আইসোলেশনে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

টুঙ্গিপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাকিব হাসান তরফদার প্রথম আলোকে বলেন, টুঙ্গিপাড়ায় যে তিনজনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে, তাঁরা জেলার বাইরে থেকে এসেছেন। তাই উপজেলা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জেলা কমিটি বরাবর লকডাউনের সুপারিশ করলে জেলা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সন্ধ্যা থেকে টুঙ্গিপাড়া উপজেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

৭ এপ্রিল দুজনের এবং ১১ এপ্রিল একজনের করোনা পজিটিভ আসায় উপজেলার সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

today govt job circular

বরিশাল জেলা লকডাউন ঘোষণা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বরিশাল জেলাকে লকডাউন (অবরুদ্ধ) ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। গতকাল রোববার সন্ধ্যা সোয়া সাতটায় জেলা প্রশাসন গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে এ ঘোষণা দেয়।

জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান প্রথম আলোকে বলেন, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই আদেশ বলবৎ থাকবে। আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ ঝুঁকি মোকাবিলায় ‘করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ’–সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ও সিভিল সার্জনের সুপারিশক্রমে এবং সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইনের ধারায় বরিশাল জেলাকে অবরুদ্ধ (লকডাউন) ঘোষণা করা হলো।

জাতীয়, আঞ্চলিক মহাসড়ক ও নৌপথে অন্য কোনো জেলা থেকে কেউ জেলায় প্রবেশ কিংবা জেলা থেকে কেউ বাইরে যেতে পারবে না। সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। জেলার অভ্যন্তরীণ সব যোগাযোগ এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে। তবে জরুরি পরিষেবা এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।

Back to top button
Close